ওভুলেশন কী এবং কখন হয়

ramoniyo syptoms of ovulation

অনেক মেয়ের মনে প্রশ্ন থাকে, আমার তো পিরিয়ড প্রতি মাসেই হচ্ছে এমনকি আমার সঙ্গীটিও সুস্থ্য, তাহলে এতো চেষ্টা করার পরেও কেনো বাচ্চা হচ্ছেনা? অথবা যাদের পিরিয়ড অনিয়মিত তাদের প্রায়শই আক্ষেপ করতে দেখা যায়, আমার তো পিরিয়ড টাও নিয়মিত না,কিভাবে বুঝব কবে চেষ্টা করলে আমার কোল জুড়ে একটা বাবু আসবে?

তাদের প্রশ্ন গুলো ভিন্ন হলেও উত্তর কিন্তু একটাই, আপনার ওভুলেশনের সময়টি কখন সেটা যদি বুঝতে পারেন, তাহলে ৫০% কাজ কিন্তু সেখানেই এগিয়ে থাকলো, এখন সুধু চেষ্টা করার বাকি। কিন্তু ওভুলেশনটাই বা কি আর কিভাবে বুঝবেন আপনার ওভুলেশন কখন হবে , সেটা নিয়েই আজ আলচনা করবো। যদিও ব্যাপারটায় অনেক সায়েন্টিফিক্যাল কথা বারতা আছে তবুও আমি চেষ্টা করবো সহজ ভাবে উপস্থাপন করতে যেন সবাই এই পোস্ট থেকে লাভবান হয়।

মেয়েদের ডিম্বাশয়ে প্রতি মাসে মাত্র একটি করে ডিম্বাণু তৈরি হয়। ডিম্বাণুটি নিষিক্ত হবার জন্য ফেলপিয়ান টিউবে ১২ থেকে ২৪ ঘণ্টা অপেক্ষা করে, এর মাঝে যদি শুক্রানু এসে  ডিম্বাণুটিকে নিষিক্ত না করে তাহলে ডিম্বাণুটি নষ্ট হয়ে যায়।কাজেই ডিম্বাণু থাকা অবস্থায় বা ডিম্বাণু আসার অন্তত ২দিন পূর্বেই যদি আপনি সহবাস করেন আপনার সন্তান ধারনের সম্ভাবনা ৯৯% । ডিম্বাণু তৈরির প্রক্রিয়াটিকেই বলা হয় ওভুলেশন।

কোন মেয়ের যদি ২৮ দিন পর পর পিরিয়ড হয় তাহলে তার ওভুলেশনের সম্ভাব্য সময় হবে শেষ পিরিয়ডের ১ম দিন থেকে হিসেব করে ৯ম থেকে ২০তম দিনের মধ্যে। অবশ্য অনেক সময় পিরিয়ডের আগে আগে বা ঠিক পরেই ওভুলেশন হতে পারে।প্রতি মাসে ওভুলেশনের দিনটি কখনই নির্দিষ্ট থাকেনা। তাই যারা সন্তান নিতে ইচ্ছুক তাদের উচিৎ হবে ওভুলেশনের সম্ভাব্য দিন গুলোতে সহবাস করা এতে গর্ভ ধারনের সম্ভাবনা ৯৯% বেড়ে যায়।

সহবাস করার পর শুক্রানু ডিম্বাণুর কাছে পৌঁছতে সময় নেয় ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টা, অর্থাৎ ১ থেকে ২ দিন। আবার অন্যদিকে শুক্রানু গর্ভের ভিতরে ২ থেকে ৫ দিন জীবিত থাকে। তাই আপনার উচিৎ হবে ওভুলেশনের কমপক্ষে ২ দিন বা ১ দিন আগে সহবাস করা। এখন কিভাবে বুঝবেন আপনার ওভুলেশন এর সময় হয়ে গেছে?

পিরিয়ডের ৯ম দিন থেকে খুব মনোযোগ দিয়ে নিচের ব্যপার গুলোর দিকে লক্ষ্য রাখুন। এর কোনটি টের পাওয়ার সাথে সাথেই বুঝতে পারবেন আপনার ওভুলেশন বা ডিম্বাণু পরিপূর্ণ হওয়ার সময় হয়ে এসেছে।

  • শরীরের তাপমাত্রার দিকে খেয়াল রাখুন। ওভুলেশনের সময় শরীরের তাপমাত্রা উঠানামা করে।
  • সারভিক্যাল মিউকাস এর পরিবর্তন । আপনার সারভিক্যাল মিউকাস অর্থাৎ সাদা স্রাব যদি শুষ্ক এবং এরূপ আঠালো হয় যে দুই আঙ্গুলের মাঝে নিয়ে দেখলে এর স্থিতিস্থাপকতা কম দেখা যায় তাহলে বুঝতে হবে আপনার ওভুলেশনের সময় হয়নি। যদি সাদা স্রাব খুব পিচ্ছিল এবং পানি পানি হয় এবং দুই আঙ্গুলের মধ্যে নিয়ে দেখলে মনে হবে যে স্থিতিস্থাপকতা বেশি তাহলে বুঝতে হবে আপনার ওভুলেশনের সময় চলে এসেছে। যদি স্রাব ক্রিমের মত আঠালো হয় তাহলে বুঝতে হবে আপনার হাতে সময় খুব কম ওভুলেশন যখন তখন হতে পারে। আর যদি দেখেন আপনার স্রাব একদম ডিমের সাদা অংশের মত আঠালো, পিচ্ছিল এবং পর্যাপ্ত পরিমানে নির্গত হচ্ছে বুঝতে হবে আপনার ওভুলেশন চলছে। অর্থাৎ ডিম্বাণু নিষিক্ত হওয়ার জন্য প্রস্তুত। এরূপ স্রাব শুক্রানু জীবিত রাখতে এবং তাদের গন্তব্যে পৌঁছতে সহায়তা করে।
  • ওভুলেশনের সময় আপনার যৌন চাহিদা বৃদ্ধি পাবে।
  • সারভিক্স চেক করার মাধ্যমে। সারভিক্স হল যোনির শেষ প্রান্তে অবস্থিত একটি অভ্যন্তরীণ জনন অংগ  যা ওভুলেশনের সময় খুলে যায়। এটি চেক করার পদ্ধতিটি খুবই নাজুক এবং প্রাকটিস এর ব্যপার। কয়েকটি ধাপে সারভিক্স চেক করা হয়। প্রথমেই আঙ্গুলের নখ কেটে নিতে হবে যেনো যোনির ভিতরে কোন আঘাত না লাগে। এরপর খুব ভালো ভাবে হাত সাবান দিয়ে ধুয়ে হাত পরিস্কার করে নিতে হবে যেনো ইনফেকশন না হয়। এরপর নিজের সুবিধা মত জায়গায় বসে মধ্যমা এবং তর্জনী আঙ্গুল যোনি পথে প্রবেশ করাতে হবে। যোনির শেষ প্রান্তেই সারভিক্স অবস্থিত। সাধারনত সারভিক্স বন্ধ থাকে।ওভুলেশনের সময় সারভিক্স খুলে যায়। লক্ষ্য রাখতে হবে আঙ্গুলের ডগায় সারভিক্স কেমন অনুভূত হয় সেটি বোঝার দিকে, যদি ঠোটের মত নরম অনুভূত হয় তাহলে ওভুলেশনের সময় হয়ে গেছে আর যদি নাকের ডগার মত শক্ত অনুভূত হয় তাহলে এখনও ওভুলেশনের সময় হয়নি।
  • আজকাল বিভিন্ন এপ্স এর মাধ্যমে ওভুলেশনের সময় ট্র্যাক করা যায়। এসব এপ্স মোবাইল এ ডাউনলোড করে লাস্ট পিরিয়ড ডেট , পিরিয়ড সাইকেল সম্পন্ন হওয়ার মোট দিন ইত্যাদি তথ্য ইনপুট করে অটমেটিক সিস্টেমের মাধ্যমে সহজেই সম্ভাব্য ওভুলেশন ডেট সম্পর্কে ধারনা পাওয়া যায়। বরং কেলেন্ডারে চার্ট তৈরি করার চেয়ে এপ্স এর মাধ্যমে ওভুলেশন এবং পিরিয়ড চার্ট তৈরি করা অনেক সহজ। 
  • অনেক মেয়েই ডিম্বাণু আসার সাথে সাথে তলপেটে একটা তীক্ষ্ণ ব্যাথা অনুভব করতে পারে। ব্যাথা কয়েক মিনিট থেকে ১ দিন পর্যন্ত স্থায়ি হতে পারে। 
  • অনেকের ক্ষেত্রে মাথা ঝিম ঝিম করে , মুড সুইং করতে পারে, বমি বমি ভাবও হতে পারে।
  • ওভুলেশন কিট ব্যবহারের মাধ্যমেও আপনি খুব সহজেই আপনার ওভুলেশন ট্র্যাক করতে পারেন। 

এখন নিশ্চয়ই আপনার মনে প্রশ্ন জাগছে ওভুলেশন কিট কি ,এটা কিভাবে কাজ করে এবং কোথায় পাওয়া যায় । ওভুলেশন কিট হল প্রেগ্নেন্সি টেস্ট করার মতই একটা টুল যা দিয়ে আপনি ওভুলেশন অর্থাৎ ডিম্বাণু আপনার গর্ভে আসলো কি না তা নির্ণয় করতে পারবেন। এটা ব্যবহার পদ্ধতি খুবই সহজ। সাধারনত পিরিয়ড শুরু হওয়ার ১২ দিন পর এবং পরবর্তী পিরিয়ড শুরু হওয়ার ১৪ থেকে ১৬ দিন পূর্বে এই টেস্ট করা হয়।ওভুলেশন কিট প্রেগ্নেন্সি টেস্ট কিটের মত এটা ডিজিটাল ও হতে পারে আবার স্ট্রিপ ও হতে পারে। স্ট্রিপে একটা কাল দাগ থাকে যেটা হল ম্যাক্সিমাম লাইন, একটি পাত্রে মুত্র সংগ্রহ করে স্ট্রিপের ম্যাক্সিমাম লাইন এর নিচে পর্যন্ত ইউরিনে ভিজিয়ে নিতে হয়, তার উপরে থাকে টেস্ট লাইন এবং কন্ট্রোল লাইন। ইউরিন এর সংস্পর্শে আসার পর যদি কন্ট্রোল লাইন আর টেস্ট লাইনে উভয়েই লাল দাগ দেখা যায় তবে বুঝতে হবে রেজাল্ট পজিটিভ এবং ওভুলেশনের সময় হয়ে গেছে আর যদি শুধু কন্ট্রোল লাইন লাল দাগ উঠে কিন্তু টেস্ট লাইনে কোন দাগ না উঠে তাহলে বুঝতে হবে আপনার ওভুলেশনের সময় হয়নি।বিকেল ৪ টা থেকে রাত ১০টার মধ্যে ইউরিন সংগ্রহ করতে হবে, কারন এ সময়ের ইউরিনে LH (Luteinizing Hormone) বেশি পরিমানে থাকে ফলে সঠিক ফলাফল নির্ণয় করা সম্ভব হয়, এই হরমন ওভুলেশন এর ১৪ থেকে ২৪ ঘণ্টা আগে থেকেই নিঃসৃত হয় । তাই ওভুলেশন এর রেজাল্ট পজিটিভ  আসলেই ধরে নিতে হবে ওভুলেশন এর জন্য আপনার হাতে আর ১৪ থেকে ২৪ ঘণ্টা সময় আছে। অন্যদিকে প্রেগ্নেন্সি টেস্ট এর জন্য সকাল বেলার প্রথম ইউরিন ব্যবহার করা হয়। ওভুলেশন টেস্ট একদিনের জন্য শুধু একবারই করতে পারবেন। নেগেটিভ রেজাল্টের জন্য পরদিন আবার একই ভাবে টেস্ট করতে হবে। 

ওভুলেশন কিট বাংলাদেশে বিভিন্ন অনলাইন সাইটে এবং বড় বড় ফার্মেসিতে কিনতে পাওয়া যায়। ১ বক্স এ ৭টা স্ট্রিপ থাকে দাম ৮০০ থেকে ৮৫০ টাকা।স্ট্রিপ গুলো ওয়ান টাইম ইউজ করা যাবে। ডিজিটাল ওভুলেশন কিটের দাম পরবে ৪১৯৯ টাকা। একটি ডিজিটাল কিট দিয়ে মোট ২০ বার টেস্ট করা যাবে। অনলাইন সাইট গুলো  বিভিন্ন সময়ে ছাড় দিয়ে থাকে।

আশা করছি তথ্যগুলো সবার কাজে আসবে । যাদের পিরিয়ড নিয়মিত হয়না বলে দুশ্চিন্তা করছেন তারাও ওভুলেশনের লক্ষন গুলো মাথায় রেখে চেষ্টা করলে শীঘ্রই মা হতে পারবেন ইনশাল্লাহ। পরবর্তী তথ্য বহুল পোস্টের জন্য আমাদের সাইট টি সাবস্ক্রাইব করে আমাদের সাথেই থাকুন। 


Leave a Reply

Your email address will not be published.